সুস্বাস্থ্যসমসাময়িক

পনির খাওয়ার উপকারিতা ও পনিরের গুণাগুণ

পনির খাওয়ার উপকারিতা ও পনিরের গুণাগুণ : পনির একটি বিশ্বমানের খাবার। সারা বিশ্বেই  নানান স্বাদের হাজারেরও বেশি ধরনের পনির পাওয়া যায় । বিশেষত ইউরোপ আমেরিকায় পনির ছাড়া সকালের নাস্তা চিন্তাই করা যায় না । বাংলাদেশেও পনিরের যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে। বিশেষত স্বাস্থ্য-সচেতন ব্যক্তিরা পরিমিত মাত্রায় নিয়মিত পনির খেয়ে থাকেন । পনিরের পুষ্টিগুণ এক কথায় বলতে গেলে অসাধারণ !

পনির খাওয়ার উপকারিতা ও পনিরের গুণাগুণ

পনিরের উপকারিতা

পনির ক্যালসিয়াম ও প্রোটিনের একটি চমৎকার উৎস যা হাড় ও দাঁতের স্বাস্থ্য সুরক্ষা করে, রক্ত জমাট বাঁধতে, ক্ষত সারাতে এবং শরীরে স্বাভাবিক রক্তচাপ বজায় রাখতে সাহায্য করে। ১৯ থেকে ৫০ বছর বয়সী পুরুষ ও মহিলাদের জন্য প্রতিদিন ১,০০০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম গ্রহণ করা প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে মাত্র ২৫ গ্রাম পনির খেলে শরীরের চাহিদার প্রায় ২০ শতাংশ ক্যালসিয়াম পাওয়া যায়।

বাসায়ও খুব সহজে স্বাস্থ্যসম্মত ও সুস্বাদু পনির তৈরি করা যায়। এজন্য ইউটিউব বা অন্য কোনো সোস্যাল মিডিয়া থেকে পনির রেসিপি দেখে বসায় নিজে নিজে পনির তৈরি করতে পারেন । এতে খরচও কম হবে এবং স্বাস্থ্যসম্মত ও সুস্বাদু পনিরও পেয়ে যাবেন ।

মাত্র এক আউন্স বা ২৮ গ্রাম পনির আপনাকে দেবে-

  • ১। ১২০ ক্যালোরি
  • ২। ১০ গ্রাম ফ্যাট
  • ৩। ৭ গ্রাম প্রোটিন
  • ৪। ২০০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম
  • ৫। ৪০০ ইউনিট পরিমাণ ভিটামিন এ
  • ৬। ৩০ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল
  • ৭। ১৯০ মিলিগ্রাম সোডিয়াম

কোন ভিটমিনের অভাবে কোন রোগ হয় জেনে নিন ।

পনিরের পুষ্টিগুণ

পনির খেলে আপনি যে যে উপকার গুলো পেতে পারেন-

১। হাড়ের সুরক্ষাঃ পনিরের পুষ্টিগুণ আপনার হাড়ের ক্ষয় রোধ করবে এবং হাড়কে শক্ত করবে।

২। দাঁতের সুরক্ষাঃ পনিরের পুষ্টিগুণ আপনার দাঁতের ক্ষয় রোধ করবে এবং দাঁতকে শক্ত করবে।

৩। ব্লাড প্রেসারঃ সমীক্ষায় দেখা গেছে নিয়মিত পনির খেলে শরীরের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রিত থাকে ।

৪। রক্তনালী সচল রাখেঃ সয়া পনির নয় বরং দুগ্ধজাত পনির খেলে রক্তনালী ভালো থাকে বলে প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে।

৫। অন্ত্রের মাইক্রোবায়োটা ও কোলেস্টেরলঃ পনির একটি গাঁজনযুক্ত খাবার । এটি অন্ত্রের ব্যকটেরিয়া বাড়াতে সাহায্য করে।

৬। ওজন বৃদ্ধিঃ নিয়মিত পনির খেলে তা প্রাকৃতিকভাবে শরীরের ওজন বাড়াতে সাহায্য করে।

৭। স্বাস্থ্যবান সেলঃ নিয়মিত পনির খেলে তা আমাদের শরীরে নতুন সেল তৈরি ও সেলগুলো সুরক্ষা করে।

ইউরোপ মহাদেশের দেশগুলোর নাম রাজধানী ও মুদ্রা

উপরোক্ত আলোচনা থেক আমরা  পনিরের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে জানতে পেরেছি তবে কিছু কিছু পনিরে স্যাচুরেটেড ফ্যাট ও সোডিয়ামের পরিমাণ বেশি থাকে যা বেশি খেলে শরীরের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। কিছু পনিরে উচ্চমাত্রার কোলেস্টেরল থাকে যা কার্ডিওভাসকুলার সমস্যা তৈরি করতে পারে। অতিমাত্রায় পনির খেলে শরীর বেশি মুটিয়ে যেতে পারে। তাই পনিরের উপকারিতা পরিপূর্ণরূপে পেতে আমাদের সচেতনভাবে পনির খেতে হবে।

পনির খাওয়ার উপকারিতা ও পনিরের গুণাগুণ সংক্রান্ত পোস্টটি আপনাদের উপকারে আসলে আমাদের শ্রম স্বার্থক হবে । পোস্টটি ভালো লাগলে কমেন্ট করতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ।

Samim Ahmed

Hey! I'm Samim Ahmed (Admin of ShikhiBD). I love to write and read on the topic of current affairs. Since my childhood; I have been an expert in writing feature posts for various magazines.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button